• রংপুর
  • শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১

শিক্ষকের ধর্ষণে ছাত্রীর পুত্র সন্তান প্রসব, গ্রেফতারের নির্দেশ

বিশেষ প্রতিনিধি
কুমিল্লা

প্রকাশ : সোমবার, ৫ অক্টোবর, ২০২০

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কোচিং সেন্টারে শিক্ষকের ধর্ষণে অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়া সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছে। এ ঘটনায় রোববার কুমিল্লার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-৩ নং আদালতে ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পরে ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রফিকুল ইসলাম শুনানির পর মামলাটি আমলে নিয়ে চৌদ্দগ্রাম থানাকে সরাসরি এফআইআর তৈরি এবং আসামিদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন। 

অভিযুক্ত তারেকুর রহমান চৌধুরী প্রকাশ তারেক চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের মৃত রেজাউর রহমান চৌধুরীর ছেলে। তিনি বিবাহিত ও তার পুত্রসন্তান রয়েছে। তারেক এক সময় স্থানীয় লক্ষীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন। স্কুলের ছাত্রীদের সঙ্গে অনৈতিক আচরণের কারণে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাকে চাকরিচ্যুত করে। পরে তিনি গ্রামে একটি কোচিংসেন্টার চালু করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট নিশাত সালাউদ্দিন জানান, কিছু দিন আগে ছুটির পর তারেক কোচিং সেন্টারে আটকে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ  ও সেই দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে রাখে। পরে ভিডিও ফাঁস করার ভয় দেখিয়ে তাকে আরও কয়েকবার ধর্ষণ করেন। এক পর্যায়ে মেয়েটি গর্ভবতী হয়ে পড়লে ঘটনাটি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় গত ৩০ এপ্রিল স্থানীয়ভাবে সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সালিশে তারেক মেয়েটিকে বিয়ে করার অঙ্গীকার করেন। পরে তারেক মেয়েটিকে গর্ভের সন্তান নষ্ট করার চাপ দিয়ে ব্যর্থ হন। এরপর গত ১২ আগস্ট ওই ছাত্রী পুত্র সন্তান প্রসব করে। এরপর তারেক ও তার পরিবার বেঁকে বসে এবং বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপর রোববার মেয়েটির বাবা কুমিল্লা নারী ও নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-৩ নং আদালতে তারেকসহ ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবদুল্লা আল মাহফুজ জানান, বাদিপক্ষ এবিষয়ে কোন প্রকার অভিযোগ নিয়ে আসেনি। আদালতের নির্দেশনা পেলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ই-মেইল : news.ajkersamaj@gmail.com
এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020
Desing & Developed by Moksadul Momin