• রংপুর
  • শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১

কুড়িগ্রামে শান্তি-শৃংখলা ও স্বাস্থবিধি মেনে পুজা উদযাপনে পুলিশ সুপারের মতবিনিময়

আবু জাফর সোহেল রানা, কুড়িগ্রাম
Area

প্রকাশ : শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০২০

কুড়িগ্রামে আসন্ন শারদীয় দূর্গাপূজা শান্তি-শৃংখলা ও স্বাস্থবিধি মেনে উদযাপন এবং পুজামন্ডপের নিরাপত্তা প্রহরা সহ দর্শনার্থীদের যাতায়াত ও আনন্দ উৎসব উপলক্ষে জেলা পুলিশ কুড়িগ্রাম করনীয় শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা জেলা ও উপজেলার পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি/সম্পাদক, হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ এবং হিন্দু কমিউনিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার(৮ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কনফারেন্স হলরুমে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম’র সভাপতিত্বে সনাতনি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সব থেকে বড় ধর্মীয় উৎসব আসন্ন শারদীয় দূর্গাপূজা উদযাপন শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা হিন্দু কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সাথে অনুষ্ঠিত হয় । হিন্দু কমিউনিটির ও জেলা – উপজেলার পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি / সম্পাদকগন পুজা ব্যবস্থাপনায় পুলিশের সার্বিক সহযোগিতা নিয়ে কঘা বলেন। এ মতবিনিময় সভায় জেলা পুলিশের সকল সার্কেল এর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে,বাংলাদেশ পুজো উদযাপন পরিষদের তথ্যমতে জানা যায়,এবারের শারদ উৎসবটি আর থাকছে না উৎসব হিসেবে ,এবারের উৎসবটি পুজোয় রুপ নিবে। অর্থ্যাৎ প্রতিবছরের মতো এবারের শারদ উৎসবে থাকছে না বাড়তি আয়োজন, বসবে না কোন বড় ধরনের মেলা, থাকবে না প্যান্ডেলের বাইরে সাজসজ্জার গেট ও আলোকসজ্জা ,পুষ্পাঞ্জলি হবে স্বল্প পরিসরে, থাকবে না সন্ধ্যার পর কোন সাংস্কৃতিক আয়োজন । এছাড়াও বাইরের দর্শনার্থীরা এবার পুজোর মন্ডপগুলোতেও প্রবেশাধিকারে থাকবে বাধা-নিষেধ ।

সভায় বৈশ্বিক করোনা মহামারীর কারণে উৎসবমুখর না করে ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে এবারের দুর্গোৎসব পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় বলে জানা গেছে । এছাড়াও প্রতিটি মন্দিরে দর্শনার্থীরাও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি জীবানুমুক্ত সামগ্রী ব্যবহারের ব্যবস্থা রাখার সিদ্ধান্ত হয়ছে।
প্রশাসন ও পূজা আয়োজকদের সূত্রে জানা যায়, এবছর কুড়িগ্রাম জেলার ৯ উপজেলায় ৪৯৮ টি মন্দিরে শারদীয় দুর্গা পূজার আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে । এ সিদ্ধান্তগুলো বিষয়ে সবাই একমত পোষন করেন।

কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম বলেন, শারদীয়া দূর্গা পুজা আনন্দ উৎসবের মাধ্যমে পালন করা হয়। জেলার ৯ টিি উপজেলার ১১ টি পুলিশ থানা ইনচার্জদের ইতিমধ্যে সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সারাদেশের ন্যায় বাঙ্গালী হিন্দুদের সব থেকে বড় ধর্মীয় উৎসব সনাতন শারদীয় দূর্গাপুজা ২২ শে অক্টোবর থেকে ২৬ শে অক্টোবর পর্যন্ত এ আয়োজনকে সুন্দর শৃংখলা শান্তিপুর্ন পরিবেশে উদযাপনে বিশেষত শিশু, কিশোরী যুবতি ও বৃদ্ধ দের দিকে বিশেষ লক্ষ্য রেখে যে কোনরকম বিশৃংখল পরিবেশ এড়াতে জেলার ১১ টি থানা পুলিশ প্রশাসনকে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, তিনি পুজাকে কেন্দ্র করে মাদক, নেশা ও মদ খেয়ে মাতাল এমন কাউকে ছার না দেয়ার কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট পুলিশ প্রশাসনকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ই-মেইল : news.ajkersamaj@gmail.com
এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020
Desing & Developed by Moksadul Momin